দীর্ঘদিন ধরে পোড়া মবিলে তৈরি হচ্ছিল সরিষার তেল!…

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সরিষার তেলের মিলের আড়ালে দীর্ঘদিন ধরে জাহাজের পোড়া মবিলকে সরিষার তেল হিসাবে বিক্রি করায় আব্বাস নামের এক অসাধু ব্যবসায়ীকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।বুধবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.আসলাম হোসাইন।এসময় অর্থদন্ড ছাড়াও সরিষার তেল হিসেবে বিক্রি করা ৩৮ ব্যারেল পোড়া মবিল ধ্বংস করা হয়। এছাড়া মানহীন, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, ওজনে কম, খাবারে কাপড় ও বার্নিসের রঙ ব্যবহার করায় উপজেলার ৮ বেকারীকে ১লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জানা যায়, ভূঞাপুর পৌরসভার সামনে অবস্থিত সরিষার তেল তৈরি কারখানা করেন আব্বাস। অন্যসব কারখানার মতোই এখানে তৈরি হচ্ছে সরিষার তৈল। তবে তা লোক দেখানো। এর আড়ালে তিনটি গোডাউন নিয়ে অতি মুনাফার লোভে দীর্ঘ দিন ধরে সরিষার তেল বলে বিক্রি করে আসছেন মানব দেহের জন্য ক্ষতিকারক এই কেমিক্যাল।পরে বুধবার সন্ধ্যায় (২২জানুয়ারি) সেখানে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় উপজেলা প্রশাসন। তল্লাশি চালিয়ে একে একে জব্দ করা হয় ৩৮ ব্যারেল ক্ষতিকারক কেমিক্যাল। পরে তা পাশ্ববর্তী স্থানে ধ্বংস করা হয়।এদিকে জাহাজের পোড়া মবিলকে সরিষার তেল হিসাবে বিক্রি করার কথা স্বীকার করেছে তেল ব্যবসায়ী আব্বাস।উপজেলা সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.আসলাম হোসাইন বলেন, ভেজাল সরিষার তেল বিক্রি করার দায়ে ব্যবসায়ী অর্থদন্ডসহ জব্দকৃত বিপুল পরিমান তেল ধ্বস করা হয়েছে। এই ঘটনার পরেও কেউ যদি অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত হয় তাহলে কঠোর শাস্তি প্রদান করা হবে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *