Home জাতীয় রোহিঙ্গা শিবিরে জোরদার হয়েছে পুনর্বাসনসহ জরুরি কার্যক্রম

রোহিঙ্গা শিবিরে জোরদার হয়েছে পুনর্বাসনসহ জরুরি কার্যক্রম

0
রোহিঙ্গা শিবিরে জোরদার হয়েছে পুনর্বাসনসহ জরুরি কার্যক্রম

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জন্য পুনর্বাসন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। সরকারের সহায়তায় ব্র্যাকসহ অন্যান্য বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ও দাতা সংস্থাগুলোর সমন্বিত উদ্যোগে এগিয়ে চলছে খাবার বিতরণ, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, শেল্টার নির্মাণসহ অন্যান্য জরুরি কার্যক্রম।

সোমবার (২৯ মার্চ) ব্র্যাকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, উখিয়ার কুতুপালংয়ের বালুখালি এলাকার রোহিঙ্গা শিবিরের ৮ ও ৯ নম্বর ক্যাম্পে ব্র্যাকের পক্ষ থেকে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ৩৪ হাজার লিটার খাবার পানি বিতরণ, ৪৯টি গভীর নলকূপ, ২৩৯টি অগভীর নলকূপ সংস্কার এবং ৩১৯টি ল্যাট্রিন মেরামত করা হয়।

শনিবার (২৭ মার্চ) আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বালুখালির ৯ নম্বর ক্যাম্প পরিদর্শন করেন ব্র্যাকের মানবিক সহায়তা কর্মসূচির (এইচসিএমপি) এরিয়া ডিরেক্টর হাসিনা আখতার হকসহ কর্মসূচির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। এর আগে গত ২৪ মার্চ ওই ক্যাম্প পরিদর্শন করেন ব্র্যাকের এইচসিএমপি’র কর্মসূচি প্রধান (ভারপ্রাপ্ত) রবার্টস সিলা মুথিনিসহ সংশ্লিষ্টরা। আজ সোমবার ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন ক্যাস্প পরিদর্শন করেন ব্র্যাকের এইচসিএমপি’র অপারেশন হেড সাহানা হায়াতসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা।

ব্র্যাকের মানবিক সহায়তা কর্মসূচির এরিয়া ডিরেক্টর হাসিনা আখতার হক বলেন, সম্প্রতি রোহিঙ্গা শিবিরে আগুন লাগার ঘটনা একটা বড় দুর্যোগ। এই ধরনের দুর্যোগে ব্র্যাক শুরু থেকে সরকারের সহযোগিতায় অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। আমরা খাবার বিতরণ, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহসহ বিভিন্ন ধরনের জরুরি কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। এর পাশাপাশি নারী ও শিশুদের সুরক্ষার বিষয়টি বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি।

জাতিসংঘের শরণার্থী-বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর সূত্র জানায়, অগ্নিকাণ্ডের পূর্বে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গা শিবিরে বাস করছিল প্রায় ১ লাখ ২৬ হাজার ৩৮১ জন মানুষ। এনজিওদের সমন্বয়কারী সংস্থা ইন্টার সেক্টর কো-অর্ডিনেশন গ্রুপের (আইএসসিজি) সূত্র অনুযায়ী, রোহিঙ্গা শিবিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রায় ১০ হাজার ঘর পুড়ে গেছে। গৃহহীন হয়েছে প্রায় ৪৫ হাজার মানুষ।উল্লেখ্য, এর আগে গত ২২ মার্চ বিকেলে কক্সবাজারের বালুখালির রোহিঙ্গা শিবিরের ৮ ডাব্লিউ, ৮ই, ৯ ও ১০ নম্বর শিবিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here